শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ০২:১৬ অপরাহ্ন
ঘোষনা :
জেকে টিভি'র জন্য জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহীরা ছবি ও যোগ্যতাসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি.ভি)  পাঠান। ই-মেইল: jktv1401@gmail.com

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে পদ্মায় হঠাৎ পানি বৃদ্ধিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
  • ২২৪ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে হঠাৎ পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রায় সাত থেকে আট শত হেক্টর জমির মাষকলাইয়ের ক্ষেত তলিয়ে গেছে। বিলম্বিত এ বন্যায় ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন কৃষকেরা। স্থানীয়রা বলছেন, গত কয়েক দিনে পদ্মা নদীতে যেভাবে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে এই ধারা অব্যাহত থাকলে নদীর পাড় উপচিয়ে পানি লোকালয়ে ঢুকে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। সরেজমিন বন্যাকবলিত এলাকা ঘুরে ও কৃষকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, আকস্মিক পদ্মা নদীতে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলার ফিলিপনগর, মরিচা, চিলমারী ও রামকৃষ্ণপুর এই চার ইউনিয়নের মাষকলাইয়ের ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। চরাঞ্চলের মাঠগুলো এক সপ্তাহ আগেও যেখানে সবুজ ফসলে ভরপুর ছিল; গত কয়েক দিনের বন্যায় এখন সেখানে থৈ থৈ পানি। তলিয়ে গেছে প্রায় সব ফসল। তলিয়ে যাওয়া ফসলের বেশির ভাগই মাষকলাইয়ের ক্ষেত। কিছু জমিতে রয়েছে বীজ পাট ও আমন ধান। সেগুলোও নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

বন্যার পানি বৃদ্ধির এই ধারা অব্যাহত থাকলে এখনো যেসব জমিতে পানি প্রবেশ করেনি সেগুলোও তলিয়ে যেতে পারে। স্থানীয় কৃষকেরা জানান, প্রতি বছর পদ্মায় বন্যার পানি বৃদ্ধি পেলেও মাষকলাই চাষের আগেই পানি জমি থেকে নেমে যায়। ফলে কৃষকেরা চরাঞ্চলে ব্যাপকভাবে মাষকলাইয়ের চাষ করে থাকেন। কিন্তু এ বছর তেমন বন্যা না হওয়ায় কৃষকেরা ব্যাপকভাবে মাষকলাই চাষ করেছিলেন; কিন্তু হঠাৎ করেই পদ্মার পানি বেড়ে যাওয়ার ফলে কৃষকেরা ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। কৃষকেরা বলেন, এ বছর চরাঞ্চলের নিম্নাঞ্চলের বেশ কিছু জমিতে আউস ধানের চারা রোপণ করা হয়েছিল। কিছু দিন আগের হঠাৎ বন্যায় জমি তলিয়ে যাওয়ায় ওই ধানও নষ্ট হওয়ায় কৃষকরো ক্ষতির মুখে পড়েছিল। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর দৌলতপুরে ২৫ শ’ পঞ্চাশ হেক্টর জমিতে মাষকলাই চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হলেও চাষ হয়েছে লক্ষ্যমাত্রার শতকরা ৬৫ ভাগ। মাষকলাই চাষ হয় চরাঞ্চলের চার ইউনিয়নে। এ বছরও সেখানে ব্যাপকভাবে মাষকলাইয়ের আবাদ হয়েছে। গত তিন-চার দিনে পদ্মার পানি আকস্মিক বৃদ্ধিতে জমির ফসল তলিয়ে যাওয়ায় কৃষকেরা কিছুটা ক্ষতির মুখে পড়বে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নে। রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নে প্রায় ৫০০ হেক্টরসহ অন্য তিন ইউনিয়ন মিলিয়ে মোট প্রায় ৭-৮ শ’ হেক্টর জমির মাষকলাই পানিতে তলিয়ে গেছে। ফিলিপনগর গ্রামের কৃষক মাহবুবুর রহমান জানান, এ বছর তেমন বন্যা না থাকায় চরাঞ্চলে তার পরিবার থেকে প্রায় ৪০ বিঘা জমিতে আগাম মাষকলাই ও বীজ পাটের আবাদ করেছিলেন। ফসলও ভালো হয়েছিল; কিন্তু গত তিন দিনে পদ্মার পানি হঠাৎ বৃদ্ধি পাওয়ায় সব জমির ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজ মণ্ডল বলেন, অনাকাক্সিক্ষত পদ্মার পানি বৃদ্ধির ফলে তার ইউনিয়নের তিন হাজারের অধিক কৃষক ফসলের সাথে সাথে তাদের মূলধনও হারাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © jknewstv.com
Developed By Rinku
themes254654365664
error: Content is protected !!