বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১১:১২ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা :
জেকে টিভি'র জন্য জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহীরা ছবি ও যোগ্যতাসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি.ভি)  পাঠান। ই-মেইল: jktv1401@gmail.com

ধানের বাজার নিম্নমূখী লোকসানের শঙ্কায় কৃষক

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১ ডিসেম্বর, ২০১৯
  • ২৭০ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়া অঞ্চল জুড়ে পুরোদমে চলছে আমন কাটা-মাড়াই। ঘরে নতুন ধান উঠলেও দাম নিয়ে হতাশায় ভুগছেন কুষ্টিয়া অঞ্চলের কৃষকেরা। আমনের কাটা-মাড়ায়ের শুরুতেই সরকার আমনের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছেন ১০৪০ টাকা দরে। সরকারী ভাবে আমন কেনাও শুরু হয়েছে ইতিমধ্যে।

তবুও সরকারের দেয়া দরের প্রভাব পড়ছেনা বাজারে। এক সপ্তহের ব্যবধানে বাজারে আবারো ধানের দাম নিম্নমূখী। এতে বড় লোকসারের শঙ্কায় করা হচ্ছে। সঙ্গে ক্ষোভ বাড়ছে কৃষকদের মধ্যে।

বর্তমানে বাজারে প্রতিমণ (৪০ কেজি ) ধান বিক্রি হচ্ছে ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকা, যা সরকারে দেয়ার অর্ধেক দরে। এর এক সপ্তহ আগে ও প্রতিমণ ধান বাজারে বিক্রি হচ্ছিল ৬৮০ থেকে ৭০০ টাকায়। মাত্র কয়দিনের ব্যবধানে আবারো মণ প্রতি কমেছে ৮০ থেকে ১০০ টাকা।

কুষ্টিয়া অঞ্চলে প্রায় ৮০ ভাগ ধান ক্রয় করে থাকেন কুষ্টিয়া জেলার পোড়াদহ মিল মালিকেরা। স্থানীয় ধান ব্যবসায়ীরা বলছেন, মিল-মালিকেরা ধান ক্রয় করতে যে দর বেধে দিচ্ছে সে দর দিয়ে কেনতে বাধ্য হচ্ছেন তারা।

আর কৃষকেরা বলছেন, সরকারে দেয়া দর বাজারে কোন প্রভাব নেই। বর্তমানে যে দরে ধানের বাজার চলছে তাতে করে উৎপাদ খরচ তো উঠবেনা, বরং ঘর থেকে অন্য কিছু বিক্রি করে গচ্ছা দিয়ে মাহাজন পরিশোধ করতে হবে।

এর আগেও বোরো ধানের দাম মণ প্রতি ১০৪০ নির্ধারণ করে দিয়েছিল সরকার। তখনও সিন্ডিকেটের কারণে কৃষকেরা সরকারে গোডাউনে ধান দিতে পারেনি। বাজারে দামও ছিল না। তাই ন্যায় মূল্য না পেয়ে বড় আর্থিক ক্ষতিতে পড়তে হয়েছিল কৃষকদের।

কৃষকেরা জানান, কুষ্টিয়া অঞ্চলে উচু-নিচু ক্ষেত প্রায় ৭০ ভাগ জমি বৃষ্টিপানির উপর নির্ভর করে আমন চাষাবাদ করে থাকে কৃষকেরা। আমনের মাঝামাঝি সময়ে পোকা আক্রমন দেখা দেয়। তাই অতিরিক্ত কীটনাশক ব্যবহার করে কৃষকদের দ্বিগুন খরচ হয়েছে। এখন ঘরে নতুন ধান উঠতে শুরু করেছে। ঘরে ধান উঠলেও পর্যপ্ত ফলন ও হচ্ছেনা। বাজানে নতুন ধানের দামও কয়েক বছরের তুলনায় সর্ব নিম্ন পর্যায়ে থাকায় দুশ্চিনন্তাই পড়েছে তারা।

কুষ্টিয়া দৌলতপুর অঞ্চলের কৃষকেরা জানান, প্রতি বিঘায় গড়ে ধান ফলন হচ্ছে কেজির মাপে ১০ থেকে ১৩ মণ করে। গত বছর হয়েছিল ১৫ থেকে ১৮ মণ। বর্তমানে বাজারে ধানের দাম রয়েছে প্রতিমণ (৪০কেজি) ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকা পর্যন্ত। যা গত বছর এ সময় ধানের দাম ছিল প্রতিমণ(৪০কেজি) ৬৫০ থেকে ৭০০ টাকা। তাদের হিসাবে গত বছরের চেয়ে চলতি মৌসুমে শুরু থেকেই ধানের দাম ১০০ থেকে ১৫০ টাকা কম পাচ্ছেন। যা দিয়ে খরচের আসলটাই উঠবে কিনা সেটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় তারা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © jknewstv.com
Developed By Rinku
themes254654365664
error: Content is protected !!