মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০০ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা :
জেকে টিভি'র জন্য জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহীরা ছবি ও যোগ্যতাসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি.ভি)  পাঠান। ই-মেইল: jktv1401@gmail.com

স্ত্রীকে জ্বলন্ত সিগারেটের ছেঁকাসহ নানা ভাবে নির্যাতন থানায় মামলা, স্বামী আটক

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২০
  • ২২৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়ার মিরপুরে বারুইপাড়া ইউনিয়নের ঢেপাহাটি গ্রামের কুদ্দুস আলীর মাদক সেবী পুত্র মহিবুল ইসলাম ওরফে লিংকন (৩০) তার স্ত্রী রোজিনার উপর যৌতুকের দারিতে ও পরোকিয়ার বাধা দেওয়ার জন্য নানা ভাবে নির্যাতনের করেছে। ঘটনা ঘটেছে সোমবার দুপুরে । নির্যাতনের সংবাদ পেয়ে রোজিনার আত্নীয় স্বজন নির্যাতিতা রোজিনাকে আহত অবস্থায় নিয়ে এসে মিরপুর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্ত্তি করেছে। ২ জনকে আসামী করে মিরপুর থানায় মামলা হয়েছে, মামলা নং ২৫ তাং ৩১-১২-২০১৯। ধারা ১১(খ)/৩০- ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩, যৌতুকের দাবিতে মারপিট করিয়া গুরুত্বর জখম ও সহয়তা করার অপরাধ। থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম মামলা রজু করেন এবং তাৎক্ষনিক এসআই মুন্সি মাফিজুর রহমান ও সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যায় এবং আসামী রোজিনার মাদক সেবী স্বামী মহিবুল ইসলাম ওরফে লিংকনকে আটক করে আদালতে সোর্পদ করেন। এ ব্যাপারে মামলারবাদী রোজিনা বলেন, আমার বাড়ি কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বাড়াদি কানাবিলের মোরের রজব আলীর কন্যা এবং (পালিত পিতা আলমগীর) কন্যা রোজিনা খাতুনের ৭/৮ বছর আগে বিয়ে হয়। এবং একটি পুত্র সন্তান জন্ম গ্রহন করে। বিয়ের সময় যৌতুক হিসাবে ৫০,০০০/= হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছিল স্বামী মহিবুলকে। নির্যাতিতা রোজিনা আরো বলেন যা আয় করে অন্য খারাফ পথে ব্যায় করে ৫/৬ মাসে আগে পরোকিয়ার জরিয়ে পড়লে সে বিষয় বাধা প্রদান করলে নেমে আসে অমানুষিক নির্যাতন তবুও সর্জ্জ করতে হয়, কারণ আমার পিতা নেই। আমার শ্বাশুড়ি কহিনুরের কু-পরামর্শে তার মাদক সেবী পুত্রকে অন্যত্রে বিয়ে করার জন্য চাপ প্রয়োগ করে। নতুবা ১ একলক্ষ টাক নিয়ে আসার জন্য চাপ দেয়। কিছু দিন আগে এই টাকার জন্য চাপ দিলে টাকা আনতে ব্যার্থ হওয়ার গত সোমবার দুপুরে আমাকে (রোজিনা) অমানুষিক নির্যাতন চালাই শুধু মার পিঠ নয় জ্বলন্ত/ খুন্তাসহ সিগারেটের ছেঁকা দিয়ে শরীরে বিভিন্ন অঙ্গ প্রতাঙ্গ এবং মুখের বিভিন্ন অংশে পুড়িয়ে দিয়েছে। আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেল্লে আরো বেশি করে এই কাজ করেছে। রোজিনা বলেন আমি জ্ঞান ফিরিয়ে পেলে কোন রকম দৌড়ে প্রতিবেশিদের আশ্রয়ে আমার অসহায় পিতা-মাতাকে সংবাদ দিলে তারা আমাকে নিয়ে আসে এবং মিরপুর হাসপাতালে চিকিৎৎসার জন্য ভর্ত্তি করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © jknewstv.com
Developed By Rinku
themes254654365664
error: Content is protected !!