মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ১২:৪০ অপরাহ্ন
ঘোষনা :
জেকে টিভি'র জন্য জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহীরা ছবি ও যোগ্যতাসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি.ভি)  পাঠান। ই-মেইল: jktv1401@gmail.com

বরিশালে পাষণ্ড স্বামী যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম,মানববন্ধন

Reporter Name
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৬ মার্চ, ২০২০
  • ৮৮ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

১৫ লক্ষ টাকা যৌতুকের দাবিতে মাদক সেবী স্বামী কতৃক দপদপিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা মারুফা আক্তার পিপিকে কুপিয়ে জখমের ঘটনার দৃষ্টান্ত মুলক বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে দপদপিয়া তিমির কাঠী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। সোমবার সকাল ১০টায় ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া উইনিয়নের জিরো পয়েন্টে এই মানবববন্ধন কর্মসূচী পালন করে তারা।
মানববন্ধনে যৌতুক লোভী স্বামী নুরে আলমের বর্বরোচিত হামলার ঘটনায় দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, দপদপিয়া ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এর ডেপুটি কমান্ডার ও স্কুল শিক্ষিকা মারুফা আক্তার পপি’র বাবা আয়ুব আলী হাওলাদার, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওহাব খান, মুক্তিযোদ্ধা এটিএম জিন্নআত আলী, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালেব সিকদার, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল লতিফ সিকদার, মুক্তিযোদ্ধা আবুল বাশার হাওলাদার প্রমুখ। এসময় বক্তারা বলেন, ১৫ লক্ষ টাকা যৌতুকের দাবিতে একজন স্কুল শিক্ষিকাকে অমানুষিক ভাবে নির্যাতন ও কুপিয়ে জখম করে স্বামী নুরে আলম। তাঁর ক্ষমতা এতটাই বেশি যে মাদক মামলায় যাবজ্জীবন সাজা হওয়ার পরও জামিনে এসে যৌতুকের জন্য নিজের স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম করে। এমন ন্যক্কার ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তারা নুরে আলমের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি করেন।
উল্লেখ,শুক্রবার বিকেল ৪টায় ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার দপদপিয়ার ৯নং ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডে মারুফা আলম পপি (৩৫)কে কুপিয়ে আহত করে স্বামী নুরে আলম। তিনি তিমির কাঠি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা এবং ওই এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা আয়ুব আলী হাওলাদারের মেয়ে। আহতকে উদ্ধার করে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় জড়িত মারুফা আলম পপি’র স্বামী ও একই এলাকার আব্দুল ওহাব খানের ছেলে নুরে আলমকে আটক করে নলছিটি থানা পুলিশ। আহতের মা বিউটি বেগম জানান, ২০ বছর আগে আব্দুল ওহাব খানের ছেলে নুরে আলম এর সাথে তার মেয়ে মারুফা আলম পপির বিবাহ হয়। সাংসারিক জীবনে তাদের দুই সন্তান রয়েছে। ২০১৫ সালে নুরে আলম ৭শ বোতল ফেন্সিডিল সহ র‌্যাবের হাতে আটক হয়। ওই মামলায় নুরে আলসের যাবজ্জীবন সাজা দেয় আদালত।
নুরে আলম সেই মামলায় ১ বছরের জামীন পায়। নুরে আলম দির্ঘ দিন যাবৎ ব্যবসায়ের জন্য তার স্ত্রী মারুফার কাছে ১৫ লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করে। ঘটনার দিন বিকেল ৪টায় ঘুমে থাকা মারুফাকে চাকু দিয়ে বেধরক কুপিয়ে আহত করে স্বামী নুরে আলম। পরে মারুফার ডাকচিৎকারে ¯’ানীয়রা ছুটে আসলে নুরে আলম পালিয়ে যায়। আর বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ করলে তাদের পারিবারের সকলকে পুড়িয়ে হত্যার হুমকীও দেয়। এমনকি জেল থেকে বেরিয়ে তাদেরকে দেখে নেওয়ার হুমকী প্রদান করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকা জনক বলে দাবি করেছে পরিবারের স্বজনরা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © jknewstv.com
Developed By Rinku
themes254654365664
error: Content is protected !!