বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর ২০২০, ০১:৩৭ পূর্বাহ্ন
ঘোষনা :
জেকে টিভি'র জন্য জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহীরা ছবি ও যোগ্যতাসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি.ভি)  পাঠান। ই-মেইল: jktv1401@gmail.com

লাহিনীর হাতুড়ি ডাক্তার মাসুদের ভুল চিকিৎসায় জীবন হারাতে বসেছে সাইফুল

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২০
  • ৯৩ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার লাহিনী চাড়া বটতৈলের পাশে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন হাতুড়ী ডাক্তার মাসুদের ভুল চিকিৎসায় জীবন হারাতে বসেছে একই এলাকার লিয়াকত ইসলামের ছেলে সাইফুল (৪০) বলে অভিযোগ উঠেছে।

ইতিপূর্বে তার বিরুদ্ধে একাধিক ভূল চিকিৎসা দেওয়া এবং তার নিকট কোন রোগী আসলে তা দালালী করে সরকারি হাসপাতাল থেকে ফ্রি চিকিৎসা দিয়ে রোগীদের ভুল-ভাল বুঝিয়ে তাদের নিকট থেকে টাকা নেওয়ারও অভিযোগও পাওয়া গেছে।অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, গত ১৫/৪/২০২০ ইং তারিখে সাইফুল ইসলামের সামান্য পরিমানে হাত কেটে গেলে তিনি চিকিৎসা নেওয়ার জন্য লাহিনী এলাকার হাতুড়ী ডাক্তার মাসুদের কাছে যায়। তারপর মাসুদ সাইফুলের হাত কাটা দেখে তার হাতে বেন্ডিজ কাপর পেচিয়ে দেয় এবং সে ফ্রিজ থেকে টিটিনার্স ইঞ্জেকশন বের করে ঠান্ডা অবস্থায়ই তা সাইফুলের শরীরে পুস করে দিয়ে সাইফুলের নিকট থেকে মেডিসিন ও তার ফি বাবদ ছয়শ টাকা নিয়ে বলে কালকে তোমার হাত সেলাই করতে হবে তাই হাসপাতালে যেতে হবে।পরের দিন সাইফুলকে সাথে নিয়ে হাতুড়ি ডাক্তার মাসুদ কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে হাতে ৫ টা সেলাই করে দেয় এবং সরকারি হাসপাতাল ডাক্তার ফ্রিতে সেলাই করে দিয়ে ঔষধ লিখে দেয়। কিন্তু হাতুড়ি ডাক্তার মাসুদ সাইফুলকে ভুল-ভাল বুঝিয়ে শুধু সেলাইয়ের সুতা বাবদই নেয় ১৫০০ টাকা। সরকারি ডাক্তার যে ঔষধ লিখে দিয়েছিলো সেগুলো হাসপাতাল থেকে নিয়ে তার বাবদও সাইফুলের নিকট থেকে টাকা নেয় মাসুদ।

এখন বর্তমানে সাইফুলের শারিরীক অবস্থা খুব খারাপ তার কারন মাসুদ ডাক্তার টিটিনার্স ইঞ্জেকশনের মেডিসিন সে ফ্রিজ থেকে বের করে কিছুক্ষন সময় বাইরে না রেখে তাৎক্ষনিক ভাবে সাইফুলের শরীরে পুস করা বলে মনে করছেন ভুক্তভোগী সাইফুল। এ ছাড়াও মাসুদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের সরকারি ঔষধ বিক্রয় করার অভিযোগও রয়েছে এবং সে সদর হাসপাতালের একজন চিন্হিত দালাল। স্থানীয় ভুক্তভোগীদের অভিযোগ প্রতিদিন সকালে মাসুদ বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল যোগে হাসপাতালে যায় এবং বাড়ি ফেরার পথে সে মোটরসাইকেলের পেছনে কার্টুনের প্যাকেটে করে সরকারি ঔষধ নিয়ে আসে।একাবাসী আরও অভিযোগ করে বলেন,ইতিপূর্বে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের দালালী করা এবং সরকারি ঔষধ হাসপাতাল থেকে পাচার কিরার সময় ৩ বার হাতেনাতে ধরা পরে অনেক টাকাও জরিমানা দিতে হয়েছে মাসুদের।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত হাতুড়ি ডাক্তার মাসুদের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে কোন রকম যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালের আরএমও তাপস কুমার সরকারের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,সরকারি ঔষধ সবই দেখতে একই রকম অভিযুক্ত মাসুদ হাসপাতাল থেকে ঔষধ নিয়ে বিক্রি করে না অন্য কোথাও থেকে এনে বিক্রি করে তা জানিনা কিন্তু কেউ সরকারি ঔষধ বিক্রি করলেই সে অপরাধী।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © jknewstv.com
Developed By Rinku
themes254654365664
error: Content is protected !!