বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:০৬ অপরাহ্ন
ঘোষনা :
জেকে টিভি'র জন্য জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহীরা ছবি ও যোগ্যতাসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি.ভি)  পাঠান। ই-মেইল: jktv1401@gmail.com

পটল চাষে স্বাবলম্বী উজ্জল হোসেন

নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৪ জুন, ২০২০
  • ১০৯ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার খলিসাকুন্ডি ইউনিয়নের নজিবপুর গ্রামের দরিদ্র কৃষক উজ্জল হোসেন (১ বিঘা)জামিতে পটল চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। তার দেখাদেখি এই সবজি চাষ করে ভাগ্যের চাকা ঘুরেছে গ্রামের অনেক কৃষকের।

বছর জুড়েই চাহিদা থাকায় এবং অন্য ফসলের তুলনায় লাভ বেশি হওয়ায় বেশি বেশি পটল চাষে ঝুঁকছেন এ গ্রামের উজ্জল হোসেন ছাড়া অন্য চাষিরা।

কৃষক উজ্জল হোসেন জানান, প্রায় ৮-১০ বছর ধরে তামাক চাষ করছি এবার তামাক চাষের পাশাপাশি(০১ বিঘা)পটল চাষ করেছি অন্য এক চাষির সহযোগিতায় ২০ শতাংশ জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে শুরু করেছছি পটলের আবাদ। প্রথম বছরেই তিনি পান সফলতা। এরপর থেকে তিনি নিয়মিত পটল চাষ করবেন বলে আসাবাদি। চলতি মৌসুমেও তিনি নিজের ২০ শতাংশ জমির সঙ্গে বর্গা নেওয়া ৩০ শতাংশ জমির সবটুকুতেই করবেন পটলের আবাদ।

উজ্জল হোসেন আরো জানান, নিজস্ব ২০ শতাংশ জমিতে তিনি কাজলা জাতের পটল চাষ করেছেন। জমি তৈরি থেকে শুরু করে, বীজ, সার, মাচা তৈরিসহ সবমিলিয়ে খরচ হয় প্রায় ১৫ হাজার টাকা। ফলন ভালো হলে এখান থেকেই সব খরচ বাদ দিয়েও বছর শেষে প্রায় ৫০-৬০ হাজার টাকা লাভ হবে বলে আশা করেন তিনি।

তিনি জানান, ২০ শতাংশ জমি থেকে সপ্তাহের প্রায় প্রতিদিনই আড়াই মণ পটল তুলে বাজারে বিক্রি করছেন। গত চৈত্র মাস থেকে চলতি আষাঢ় মাস পর্যন্ত প্রতি কেজি তিনি ২০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৩৩ টাকা কেজি দরে পাইকারি দামে পটল বিক্রি করছেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উজ্জল হোসেনের সাফল্য দেখে আগ্রহী হয়ে অন্য কৃষক এলাকার আসমাউল বর্গা নেওয়া ২০ শতাংশ, সহেল ২০ শতাংশ পটল চাষ করছেন।

স্থানীয় কৃষক আচু, ইসমাইল মণ্ডল ও সিরাজ বেপারী বলেন, ‘কৃষক উজ্জল সার্বক্ষণিক তার পটল ক্ষেতে কাজ করেন। বাজারে তার পটলের কদরও বেশি। কৃষি বিভাগের সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে এবং এ পটলের ন্যায্য মূল্য পেলে এ অঞ্চলে পটল চাষের পরিধি আরও বাড়বে।’

ট্র্যাপ (কীটনাশক ফাঁদ) ব্যবহার করে নিরাপদ সবজি উৎপাদন কৃষকদের মাঝে বেশ সাড়া জাগিয়েছে। কারণ এতে কীটনাশকের ব্যবহার প্রায় অর্ধেক হ্রাস পেয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিস সবসময় আধুনিক পদ্ধতিতে পটল উৎপাদন এবং পোকা-মাকড় ও রোগ দমনে আইপিএম পদ্ধতিসহ বিভিন্ন কার্যকর পরামর্শ প্রদান করে থাকে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © jknewstv.com
Developed By Rinku
themes254654365664
error: Content is protected !!