শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০৪:৪০ অপরাহ্ন
ঘোষনা :
জেকে টিভি'র জন্য জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে।  আগ্রহীরা ছবি ও যোগ্যতাসহ জীবন বৃত্তান্ত (সি.ভি)  পাঠান। ই-মেইল: jktv1401@gmail.com

কুষ্টিয়ায় এবার জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতি নাবালিকাকে সাবালিকা দেখিয়ে বাল্য বিয়ে

জেকে নিউজ ডেস্ক :
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৯৬ বার নিউজটি পড়া হয়েছে

 

জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতিতে সহায়তা করেন ইউপি চেয়ারম্যান তার পর নাবালিকা মেয়েকে সাবালিকা দেখিয়ে বিয়েদেন কনের বাবা । এমনি একটি ঘটনা ঘটেছে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার ১নং প্রাগপুর ইউনিয়নে । মেয়েটির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সনদ বলছে মেয়েটির জন্ম ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০০৭ । ২০১৬ সালে মেয়েটি পরীক্ষার দেয় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী তাহলে মেয়েটির এখন পড়ার কথা ৯ম শ্রেণীতে । তাহলে তার বর্তমান বয়স দাড়ায় প্রায় ১৩ বছর ।
সামপ্রতি জন্ম নিবন্ধন জালিয়াতি করে এক পিতা তার নাবালিকা ৯ম শ্রেণি পড়ুয়া কন্যাকে বাল্য বিবাহ দেওয়ার ঘটনা ফাসঁ হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে,উপজেলার ১নং প্রাগপুর ইউনিয়নের মুসলিমনগর গ্রামে ।
একটি সূত্রে জানা যায়, মুসলিমনগর গ্রামের মো ঃ সোহরাব হোসেনে তার নাবালিকা কন্যা স্কুল ছাত্রী মোছাঃ সুরাইয়া ইয়াসমিন সুরভীর বিবাহ দেওয়ার জন্য স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জন্ম নিবন্ধনে মেয়ের বয়স বাড়িয়ে একটি সার্টিফিকেট করে নেয় । এর পর ওই জন্ম নিবন্ধন দিয়ে তার মেয়েকে বিয়ে দেন চলতি বছরে জুনমাসের ২৯ তারিখে ।
এদিকে প্রতিবেদকের হাতে আসে একই নামের আরেকটি জন্ম নিবন্ধন সনদ যা মেয়েটির প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সনদের সাথে মিলে যায়। জন্ম নিবন্ধন সনদ টি প্রদান করা হয় ভেড়ামারা পৌরসভা থেকে । যেটি ইস্যুর তারিখ ২৫,০৫,২০১৫ ও নিবন্ধন বহি নং ০৮ । তাহলে এবার প্রশ্ন দাড়ায় একজন ব্যাক্তির ভিন্ন বয়সের জন্ম সনদ দুটি হলো কিভাবে? যা এখনও রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন স্থানীয় সরকার বিভাগের ওয়েব সাইটে বহাল ।

২৩,০২,২০১৯ তারিখে ইস্যু একি ব্যাক্তির আরেকটি জন্ম নিবন্ধন সনদ যার নিবন্ধন বহি নং ১৪। এই নিবন্ধনটি তৈরি করাহয় উপজেলার ১ নং প্রাগপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে যা বহাল আছে রেজিস্ট্রার জেনারেলের কার্যালয়, জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন স্থানীয় সরকার বিভাগের ওয়েব সাইটে ।
এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল মাস্টারে কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি ০২ নভেম্বর প্রতিবেদককে বলেন, আমি মেয়েদের জন্ম সনদ প্রদানের আগে তাদেরকে সশরীরে দেখে তারপরে স্বাক্ষর করি , তবে তার পরিষদ থেকে অপ্রাপ্ত বয়সকো মেয়েদের বয়স বাড়িয়ে জন্ম সদন দেবার বিয়য়ে তিনি বলেন এটা হওয়ার কথানা তারপরেও আমি বিষটি দেখে আপনাকে কাল পরশু জানাব । তাকে ০৩ নভেম্বর রাতে মুঠোফনে জানতে চাওয়াহলে তিনি বলেন আমি বিষটি দেখেছি ওই মেয়েটি তার এস.এস.সি সার্টিফিকেট দেখিয়ে জন্ম সনদটি তৈরি করেছে ।
এদিকে মেয়েটি বর্তমানে মহিষকুন্ডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছত্রী বলে জানিয়েছেন একটি বিসস্ত শুত্র।
ধারাবাহিক পর্ব দেখেতে চোখ রাখুন আগামি পর্বে ।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর ....
© All rights reserved © jknewstv.com
Developed By Rinku
themes254654365664
error: Content is protected !!